ফিল্মি কায়দায় অপহরণের ছক কষে পরিবারের কাছে টাকা আদায়ের চেষ্টা

ফিল্মি কায়দায় অপহরণের ছক কষে পরিবারের কাছে টাকা আদায়ের চেষ্টা।ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ধূপগুড়ি বারঘোরিয়া এলাকায়।জানা যায় বারঘোরিয়া এলাকায় প্রতিবেশী দুই কিশোর বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে হঠাৎ নিখোঁজ হয়।এরপর সন্ধ্যা নাগাদ এক কিশোরের পরিবারের লোকের কাছে ফোন আসে তাদের পরিবারের ছেলেকে অপহরণ করা হয়েছে।মুক্তিপণ হিসাবে পাঁচ লক্ষ টাকা দাবি করা হয়।পাশাপাশি অনর্গল হিন্দি ভাষায় ওই পরিবারকে হুমকি দেওয়া হয় দ্রুত টাকা না দেওয়া হলে তাদের ছেলেকে প্রাণে মেরে ফেলা হবে এবং কোন চালাকি করার চেষ্টা করলে বা পুলিশকে জানালে মৃতদেহ বাড়িতে পৌঁছাবে।স্পষ্ট হিন্দি ভাষায় হুমকিতে আতঙ্কিত ও হতচকিত হয়ে পরে ওই পরিবার।বিরাট অঙ্কের মুক্তিপণ এত অল্প সময়ে জোগাড় করা সম্ভব নয় বলে অপহরণকারী হিসাবে ফোনের উল্টে দিকে থাকা ব্যক্তিকে বারংবার কাকুতিমিনতি করা হয়।পরবর্তীতে আতঙ্কিত ওই পরিবার ধূপগুড়ি থানার পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করে।খবর পাওয়া মাত্রই ধূপগুড়ি থানার আইসি সুজয় তুঙ্গার নেতৃত্বে ধুপগুড়ি থানার পুলিশ বাহিনী ঘটনার তদন্ত শুরু করে।মোবাইল ফোন নম্বর অনুসন্ধান করে জানা যায় অপহরণের ফোন আসা নম্বরটি ধূপগুড়ি এলাকায় সক্রিয় রয়েছে।এরপর পুলিশ মোবাইল টাওয়ারের স্হান দেখে তল্লাশি চালাতে গিয়ে প্রতিবেশী কিশোরকে বাজার এলাকায় দেখতে পায়।আটক করা হয় তাকে।তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে জানা যায় ওই কিশোর ধূপগুড়ির একটি বেসরকারি লজে রয়েছে।উদ্ধার করা হয় ওই কিশোরকে।থানায় নিয়ে এসে দুই কিশোরকেই জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে তারা জানায় তারা দুইজনে মিলে টাকার জন্য নিজেরাই এই ছক কষে ছিল এবং নিজেদের পরিবারকে ফোনে অপহরণের গল্প শোনায়।পুলিশের তরফে দুই পরিবারকে থানায় ডাকা হয় এবং পরিবারের সঙ্গে কথা বলে তাদের কোন অভিযোগ না থাকায় মুচলেখা নিয়ে দুই কিশোরকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.