হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশের আবার বড়ো ধরনের সাফল্য‌

মালদাঃ-হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশের আবার বড়ো ধরনের সাফল্য‌।কিডনাপ হয়ে যাওয়ার ২৭ দিন পর কলকাতা থেকে এক নাবালিকা মেয়েকে উদ্ধার করলেন হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা যায় হরিশ্চন্দ্রপুর-১ নং ব্লকের মহেন্দ্রপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের ভবানীপুর গ্রামের বাসিন্দা মহম্মদ সেইমুল আলির ছেলে আফতাব আলি(১৮) কুশিদা এলাকার ১৬ বছরের এক নাবালিকা মেয়েকে অপহরণ করে নিখোঁজ হয়ে যায় বলে খবর।হরিশ্চন্দ্রপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন নাবালিকা মেয়ের বাবা।অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তে নামে হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশ।২৭ দিন ধরে তল্লাশি চালানোর পর বুধবার গোপন সুত্রে খবর পেয়ে মোবাইল ফোন ট্র্যাক করে কলকাতা থেকে ছেলে ও মেয়েকে উদ্ধার করে নিয়ে আসে বলে খবর। বৃহস্পতিবার অভিযুক্ত ছেলেকে চাঁচল মহকুমা আদালতে পেশ করেন এবং মেয়েকে মালদা হোমে পাঠানো হয়।

অভিযুক্ত ছেলে আফতাব আলি জানান মেয়েটির সঙ্গে তার দেড় বছরের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। মেয়ের বাবা নাবালিকা মেয়ের বিয়ে অন্য ছেলের সঙ্গে ঠিক করলে মেয়েটি প্রেমের টানে তার কাছে চলে আসে।তারা পুলিশের ভয়ে কলকাতা পালিয়ে যায়।অপহরণের অভিযোগ একেবারে মিথ্যা বলে জানান আফতাব।

কুশিদা গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান আক্তারি খাতুনের স্বামী আব্দুল রসিদ জানান প্রায় এক মাস আগে নাবালিকা মেয়েটিকে অপহরণ করে কলকাতায় লুকিয়ে ছিল আফতাব আলি।গোপন সুত্রে খবর পেয়ে হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশ তাদের ‌ উদ্ধার করে নিয়ে আসে।পুলিশের এহেন কাজকে সাধুবাদ জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

অভিযুক্ত ছেলের মা সহমিনা বিবি জানান তার স্বামী রাজ মিস্ত্রি। স্বামীর সঙ্গে কলকাতায় থাকে সে। ছেলেও কলকাতায় থাকত। ঈদের সময় ছেলে বাড়ি চলে আসে।ছেলে মেয়ের কি সম্পর্ক রয়েছে তা তিনি জানেন না।

Leave a Reply

Your email address will not be published.