পুজোর সময় মানুষ এবং বন্যপ্রান সংঘাত কমাতে বন দপ্তরের শিবির চলছে বিভিন্ন চাবাগান এবং গ্রামগঞ্জে

পুজোর সময় মানুষ এবং বন্যপ্রান সংঘাত কমাতে বন দপ্তরের শিবির চলছে বিভিন্ন চাবাগান এবং গ্রামগঞ্জে।

বন্য প্রানী ও মানুষের সংঘাত কমানর উপর জোর দিয়েছে বনদপ্তর।সচেতনতা তৈরী করে ও পারষ্পরিক শুভ চেতনা, তৈরী করার উদ্দেশ্যে বিভিন্ন জায়গায় বিশেষ করে চা বাগান গুলিতে জাগরুক শিবির করছে বন দপ্তর। বুধবার বিকেলে এরকম শিবির হল মাল ব্লকের গুড হোপ চা বাগানের জংলী লাইনে।উপস্থিত ছিলেন চাবাগানের ম্যানেজার ,স্পোরের সম্পাদক শ্যামা প্রসাদ পান্ডে।এশিয়ান এলিফ্যান্ট সোসাইটি পক্ষে তন্ময় মুখার্জিও, নেচার ও মেট এর প্রতিনিধিরা। এই শিবিরে চাবাগানের শ্রমিকদের বোঝানো হয়, গ্রামে হাতি বা বন্য জন্তু এলে কিভাবে তার মোকাবিলা করতে হবে। পাশাপাশি গ্রামের কৃষি জমি এলাকায় বিদ্দুৎ এর তার লাগানো উচিত নয়। রাতের বেলায় হাতি এলে দূর থেকে পর্যবেক্ষণ করে বন দপ্তরকে খবর দিতে হবে। এরজন্য এদিন চা শ্রমিকদের চার্জার লাইট প্রদান করা হয়।

কয়েক দিন আগে এরকম শিবির হয় সোনালী চা বাগানে,পাথরঝোরা চা বাগানে। এদিন উপস্থিত ছিলেন মালবাজার ওয়াইল্ড লাইফের রেঞ্জার দীপেন সুব্বা এবং বনকর্মিরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.