চা বাগান খোলা থাকলেও বন্দ থাকলো হাটবাজার দোকানপাট, বন্ধে মিশ্র প্রভাব পড়লো জলপাইগুড়িতে

চা বাগান খোলা থাকলেও বন্দ থাকলো হাটবাজার দোকানপাট। বন্ধে মিশ্র প্রভাব পড়লো জলপাইগুড়িতে।

জলপাইগুড়িতে বন্দ দোকানপাট। চলছে না বেসরকারি বাস। সরকারি বাস আটকে দিল বন্ধ সমর্থকেরা। সকালে এই চিত্র থাকলেও বেলা গড়ালে পালটে গেলো চিত্র। অফিস মুখী হোলো মানুষ।

জলপাইগুড়ি শান্তি পাড়া ডিপো থেকে শিলিগুড়ি কিংবা ডুয়ার্স সহ অন্যান্য রুটে বাস চলাচল করে। সোমবার সকাল থেকে এই বাস চলাচল আটকে রাখে বন্ধ সমর্থকেরা। খবর পেয়ে ছুটে আসে জলপাইগুড়ি কোতোয়ালি থানার পুলিশ। তাদের সরিয়ে দিয়ে শুরু করে বাস চলাচল।

অপরদিকে সোমবার সকালে জলপাইগুড়ি শহর ও শহর সংলগ্ন এলাকার বাজার গুলি বন্দ ছিলো। পাশাপাশি খোলেনি দোকানপাট।
তবে বেলা বাড়লে চিত্রটা পালটায়। কিছু দোকানপাট খোলে। শুরু হয় টোটো চলাচল। অফিস মুখী হতে দেখা যায় কর্মীদের। পাশাপাশি অফিস গুলির সামনে বন্ধ সমর্থকদের দেখা যায়।

এদিন জলপাইগুড়ি জেলা আদালতের গেটে বন্ধের সমর্থনে লাগানো পোস্টার খোলাকে কেন্দ্র করে বাম মহিলা নেত্রীত্বের পুলিশের সাথে তুমুল বাক বিতন্ডা। ঘটনাকে ঘিড়ে উত্তেজনা জলপাইগুড়িতে। পরে পুলিশ একপ্রকার জোড় করে পোস্টার খুলে দিয়ে হঠিয়ে দেয় বাম নেত্রীত্ব দের।

পাশাপাশি বন্ধের কোনও প্রভাব পড়েনি চা বাগানে। এদিন সকাল থেকে জেলার ২৫০০০ ক্ষুদ্র চা বাগিচা সহ জেলার প্রায় সমস্ত চা বাগানে স্বাভাবিক ভাবে কাজ হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.